সোমবার, ৩০ জানুয়ারী ২০২৩, ০৫:২০ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁও ব্লাড ডোনেশন ক্লাবের নতুন কমিটি গঠন সভাপতি জয় সম্পাদক মুন্না দারাজগাঁও হামিদ আলী খান উচ্চ বিদ্যালয়ের অভিভাবক প্রতিনিধি নির্বাচন অনুষ্ঠিত ঠাকুরগাঁওয়ে হরিপুরে আইপজিটিভের উদ্যোগে কম্বল বিতরণ ঠাকুরগাঁওয়ে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে সরস্বতী পূজা অনুষ্ঠিত হচ্ছে ঠাকুরগাঁওয়ে আবাসিক হোটেল থেকে ট্রাকচালকের লাশ উদ্ধার ঠাকুরগাঁওয়ের দুইজন জাতীয় উশু চ্যাম্পিয়নশিপ এ বিজয়ী হয়েছেন ঠাকুরগাঁওয়ে জিয়াউর রহমানের ৮৭ তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা বেনাপোলে শিশু ধর্ষণের অভিযোগে গ্রেফতার ১ ঠাকুরগাঁওয়ে নারী ও শিশু মামলায় এক ব্যক্তির যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ইজতেমার জন্য রোববার মেট্রোরেল চলবে সারাদিন

পরকিয়া প্রেমের জেরে গৃহবধূ হত্যা, ২ যুবকের যাবজ্জীবন দণ্ড

জার্নাল আই ২৪ ডেস্ক
  • হালনাগাদ সময় : মঙ্গলবার, ১৭ জানুয়ারী, ২০২৩
  • ২৬ বার

পরকিয়া সম্পর্কের জের ধরে সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় গৃহবধূ হত্যায় ২ যুবককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছে আদালত। একই সঙ্গে প্রত্যেককে ২০ হাজার টাকা অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও ১ বছরের বিনাশ্রম দণ্ড দেয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক ফজলে খোদা মোঃ নাজির এ দণ্ডাদেশ প্রধান করেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন উল্লাপাড়ার এনায়েতপুর গুচ্ছগ্রামের মৃত আব্দুল মান্নানের ছেলে মো. নুর ইসলাম (৪৩), একই গ্রামের মো. হানিফ আলীর ছেলে মো. শফিকুল ইসলাম (৪৩)।

মামলার অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, নিহত গৃহবধূ উল্লাপাড়ার ঘাটিনা মধ্যপাড়া গ্রামের মোঃ সাইফুল ইসলামের মেয়ে সেতু খাতুন (২০)র সঙ্গে এনায়েতপুর গ্রামের মোঃ রেজাউলের সঙ্গে বিয়ে হয়। বিয়ের পরে তাদের বিচ্ছেদ হয়।

ঘটনার দুই মাস পূর্বে সেতু খাতুনের সঙ্গে উপজেলার বেতকান্দি গ্রামের বাক প্রতিবন্ধী মো. শিপন কারীর সঙ্গে ২য় বিয়ে হয়। বিয়ের আগে থেকেই আসামি নুর ইসলাম ও শফিকুল ইসলামের সঙ্গে সেতু খাতুনের পরকিয়া ও অবৈধ সম্পর্ক গড়ে ওঠে।

এরই একপর্যায়ে গত ২০১৯ সালের ২০ সেপ্টেম্বর আসামি নুর ইসলামকে সিএনজি নিয়ে তার স্বামীর বাড়িতে আসতে বলে সেতু খাতুন। মধ্যরাতে শফিকুল ইসলামকে সঙ্গে নিয়ে স্বামীর বাড়ি থেকে সেতু খাতুনকে নিয়ে উল্লাপাড়ার ঘাটিনা ব্রীজের পশ্চিম পাশে যান নুর ইসলাম।

সেখানে শফিকুল ও নুর ইসলাম তার সঙ্গে অবৈধ মেলামেশা করতে চাইলে সেতু খাতুন বলেন তাকে বিয়ে করতে হবে। বিয়ে না করলে তাদের বাড়িতে গিয়ে অশান্তি সৃষ্টি করার হুমকি দেয় সে।

এতে নুর ইসলাম ও শফিকুল ইসলাম তাদের অবৈধ কর্ম ফাঁস হয়ে যাওয়ার ভয়ে সেতু খাতুনকে হত্যার পরিকল্পনা করেন। এর অংশ হিসেবে সেতু খাতুনকে ব্রীজের পশ্চিম পার্শ্বে ধুইঞ্চা ক্ষেতে নিয়ে গলায় ওড়না পেঁচিয়ে তাকে শ্বাসরোরে হত্যা করে।

এঘটনায় নিহতের বাবা মোঃ সাইফুল ইসলাম বাদী হয়ে উল্লাপাড়া থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। ১৩ জন সাক্ষীর সাক্ষ্যগ্রহণে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় জেলা ও দায়রা জজ আজ আসামি মোঃ নুর ইসলাম ও মোঃ শফিকুল ইসলামের উপস্থিতে এ রায় ঘোষণা করেন।

পরে তাদের জেলা কারাগারে প্রেরণ করা হয়।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই বিভাগের আরো খবর
© ২০২২ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। জার্নাল আই ২৪ |
themesba-lates1749691102